কলমি শাকের বেস্ট উপকার গুলো।*

 

কলমি- শাকের বেস্ট উপকার গুলো। নামে অনেক কম কিন্তু কামে অনেক জাদা এরকম একটি শাকসবজি হল কলমি শাক অন্য যে কোন শাকসবজি থেকে বহুগুণ উপকারী ভরপুর একটি সবজি গ্ৰাম বাংলাতে নদী-নালা খাল-বিল পুকুর ও বিক্ষিপ্ত ভাবে দেখতে পাওয়া যায় এগুলো চাষ করা হয় না প্রাকৃতিক ভাবে এখানে বেড়ে ওঠে এবং অনেকেই এখান থেকে সংগ্রহ করে খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে তাছাড়া বর্তমানে এখন মাঠে-ঘাটে চাষাবাদ হচ্ছে এই বহুমূল্যবান সবজি টি এবং কলমি শাক এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন কে, ভিটামিন ই, ভিটামিন বি, ভিটামিন এ, পবিত্র মূল্যবান ভিটামিন সমৃদ্ধ একটি সবজি বা শাক।

বৃদ্ধি সহায়ক: বর্তমানে আমরা আমাদের এবং আমাদের ছোট ছোট বাচ্চা ছেলে মেয়েদের বৃদ্ধি নিয়ে অনেক সমস্যার মধ্যে থেকে যায় বা হাইটের জন্য আমরা অনেক প্রবলেম ফেস করতে হয় আমরা জানি আমরা কোন প্রাকৃতিক উপায়ে যেতে আমাদের বৃদ্ধি আমরা করতে পারি তাহলে সেই বৃদ্ধিতে আমাদের চিরদিন রয়ে যাবে আর আমরা যদি মেডিসিন এর সাহায্যে নেই তাহলে সেটা আমাদের হিতে বিপরীত হবে এবং আমাদের ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাবে আমরা যদি নিয়মিত কলমি শাক খাদ্য হিসেবে খায় তাহলে আমাদের এবং আমাদের ছোট ছোট বাচ্চা মেয়েরা অতি তাড়াতাড়ি বৃদ্ধি বা হাইট পেতে সহায়তা করে।

রাতকানা প্রতিরোধ: আমরা অনেকেই আছি দিনের বেলা আমরা সমস্ত কিছু দেখতে পায় দিনের বেলায় আমাদের চোখে কোন রকম অসুবিধা প্রবলেম দেখা দেয় না কিন্তু যখন রাতের বেলায় বাড়াতে দেখে আমরা সম্পন্ন কিন্তু ভাবে দেখতে পাইন সেটা রাতের জন্য নয় আমাদের অনেকেরই সেটা আমরা নিজেরাও জানেনা আমাদের রাতকানা বলে একটি রোগ আমাদের নিজেদের অজান্তেই আমাদের মধ্যে রয়ে গেছে যার ফলে রাতে আমরা সহজে দেখতে পায়না তবে আমরা যদি নিয়মিত কলমি শাক খাদ্য হিসেবে খায় তাহলে এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ থাকার কারণে এবং একটি রাতকানা প্রতিরোধ করতে সহায়তা করে থাকে।

অস্থি ও দাঁত: আমরা জানি আমাদের শরীরে আমাদের দাঁত কতটা মূল্যবান আমাদের দাতে যদি কোন রকম অসুবিধা হয় তাহলে আমরা সহ্য করতে পারি না এবং যে কোনো সহজ খাদ্য খুব সহজেই খেতে পারে না আমাদের দাঁতের নানা রকম অসুবিধা থাকার কারণে দাঁতের পাইরিয়া তাদের রক্ত পড়া দাঁতের গোড়া ফোলা দুর্বল হয়ে যাওয়া প্রভৃতি কারণের জন্য তাছাড়া আমাদের শরীরের যাবতীয় অস্থি বা হাড় এর অসুবিধা থাকার কারণে এশাকে আছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম ম্যাগনেসিয়াম নাইট্রেট যার ফলে আমাদের দাঁতের যাবতীয় সমস্যা এবং যাবতীয় সমস্যা এ সমস্যা গুলো আমাদের শরীর থেকে চিরতরে মুছে ফেলতে সক্ষম হয় এবং আমাদের জীবন সুন্দর সুস্থ ও সতেজ থাকে।

বন্ধ্যাত্ব প্রতিরোধ: বন্ধ্যাত্ব একটি মারাত্মক একটি সমস্যা আমাদের উভয়ের ছেলে হতে পারে অনশুমান মেয়ের হতে পারে এটি কার হবে বলা মুশকিল তাহলে আমাদের কি হয় কোন সন্তান বাচ্চা কাচ্চা হয় না এরকম অনেকেই আছে যাদের এই সমস্যা দেখা দিয়েছে সমস্যা আছে হাজারো চেষ্টা করেও সন্তানের মুখ দেখতে পায় না তবে যদি নিয়মিত কলমি শাক খাদ্য হিসেবে খাওয়া হয় তাহলে এই খাদ্যে ভিটামিন ই বন্ধ্যাত্ব প্রতিরোধ করতে সক্ষম হয় এবং বাচ্চা ধারণের ক্ষমতা আস্তে আস্তে ফিরে পায় এবং সহজেই বাচ্চা ধারণ করতে পারে ছেলে বা মেয়ে হোক।

নখের গঠনে: বর্তমানে অনেকেই আছে আমাদের হাতে পায়ের নখের সমস্যার মধ্যে আছে আমাদের হাতে পায়ের নখ অতিরিক্ত পাতলা হওয়ার কারণে অটোমেটিক ভেঙে যায় বা ফেটে যায় বা আমাদের হাতে পায়ের নখ শক্ত হয় না বা আস্তে আস্তে পচে যায় এবং হাতে পায়ের নখ সুন্দর ভাবে গঠিত হয় না একা বেকা ভায়রা গঠন দেখা দেয় তবে আমরা যদি নিয়মিত কলমি শাক খাদ্য হিসেবে খায় তাহলে এতে আছে প্রচুর পরিমাণে ফসফরাস যার ফলে কি হয় আমাদের শরীরের যাবতীয় অস্থি এবং নখের গঠন তৈরিতে সাহায্য করে এবং এর সমস্যাগুলো সমাধান করে।




thanks.


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন